ওয়েব রিসার্চ (Web research) কি এবং কিভাবে ওয়েব রিসার্চ করা যায়

Web research 1

এফিলেয়েট মর্কেটিং বা অনলাইন থেকে ইনকাম করতে চাইলে ওয়েব রিসার্চ ( Web research ) করা জানা অত্যন্ত জরুরী। কারন ওয়েব রিসার্চ এর মাধ্যমে সম্ভব্য ক্রেতাদের তথ্য জেনে ইমেইল মর্কেটিং বা মোবাইল মর্কেটিংয়ের বা অন্য কোন উপায়ে নিজের পন্যের প্রচার করা বা মর্কেটিং করা সহজ হয়। অনলাইনে বিজনেস করতে চাইলে যে কোন বিজনেস ম্যান ওয়েব রিসার্চ এর মাধ্যমে তাদের সম্ভাব্য ক্রেতা খোজে থাকেন্। ওয়েব রিসর্চের মাধ্যমে কোন প্রতিষ্ঠানের ঠিকানা, প্রতিষ্ঠানের মালিকের নাম, মোবাইল নম্বার, ওয়েবসাইট নাম, ইমেইল, ফেসবুক এড্রেস, ইত্যাদি তথ্য সহজে রেব করা যায়। এগুলোর ভিত্তিতে ক্রেতাদের কাছে সহজে পৌঁছা সম্ভব হয় এবং সেল জেনারেট করা সম্ভব হয়।

ওয়েব রিসার্চ করতে হলে কি কি যোগ্যতা থাকা দরকার :

১. গুগুল সার্চ ভালোভাবে জানতে হবে।

২. ইন্টারনেটের ব্যবহার ভালোভাবে জানতে হবে।

৩. গুগুল ডক এবং স্প্রেডশীটের ব্যবহার ভালোভাবে জানতে হবে।

৪. ফেসবুকের সঠিক ব্যবহার জানতে হবে।

৫. সার্চ ইন্জিন গুলো সম্পর্কে ধারনা থাকেতে হবে।

ওয়েব রিসার্চ (Web research) কি :

কোন কাঙ্খিত তথ্য খোজে পাওয়ার জন্য ওয়েব সাইটে বা সার্চ ইন্জিনে যে রিসার্চ করা হয়ে থাকে তাকে ওয়েব রিসার্চ বলা হয়ে থাকে। পরিস্কার ভাবে বলা যায় কোন বায়ার বা ক্লাইন্ট আপনাকে কোন তথ্য খোজে বের করার কাজ দিল তখন তা ওয়েব সাইটে বিভিন্ন তথ্য সূত্রের মাধ্যমে খোজে বের করে গুগুল ডক বা স্প্রেডশীটের মাধ্যমে উপস্থাপন বা প্রেজেন্টেশন করাই হচ্ছে ওয়েব রিসার্চ। সহজ ভাবে বলা যায় ইন্টারনেটের সহায়তায় বিভিন্ন ওয়েব সাইটে খোজে খোজে কোন তথ্য বের করার প্রক্রিয়াকেই ওয়েব রিসার্চ বলা হয়।

কিভাবে ওয়েব রিসার্চ ( Web research ) করা যায় :

ওয়েব রিসার্চ ( Web research ) খুব একটা কঠিন কাজ নয়। তবে ওয়েব রিসার্চ করতে হলে আপনাকে অনলাইনে বিভিন্ন মাধ্যম সম্পর্কে ধারনা রাখতে হবে। যে গুলোর মাধ্যমে সহজে আপনার কাঙ্খিত তথ্য খোজে বের করতে পারবেন। তবে সে গুলো বিষয় সম্পর্কে বিশদ ধারনা থাকতে হবে তা নিচে উল্লেখ করা হলো। এ গুলোর মাধ্যমে রিসার্চ করে কোন তথ্য সহজে খোজে বের করতে পারবেন। ওয়েব রিসর্চের বিভিন্ন পন্থা রয়েছে তারমধ্যে উল্লেখযোগ্য কিছু পন্থা নিচে তুলে ধরলাম।

১. গুগুল এডভান্স সার্চ :

গুগুল এডভান্স সার্চ কি ? গুগুল এডভান্স সার্চ হচ্ছে সাধারনত: আমরা গুগুলে সার্চ করলে টেক্সট আকারে সম্মুখ ধারনা লাভ করে থাকি। কিন্তু গুগুল এডভান্স সার্চ করলে সে বিষয় সম্পর্কে বিশদ বিস্তারিত ভাবে জানতে পারবেন। তার নাম, গুনাগুন ও উপকারিতাসহ বিশদ বর্ননা জানতে পারবেন। তাই আমাদের গুগুল এডভান্স সার্চ সম্পর্কে ধারনা থাকতে হবে।

২. গুগুল ট্রেন্ডস :

গুগুল ট্রেন্ডস হচ্ছে বর্তমানে বিশ্বে কোন ঘটনা বেশী আলোচনা বা সমালোচানা হচ্ছে সে বিষয়টাই হচ্ছে বর্তমানের ট্রেন্ডস। ধরুন বায়ার বললো বর্তমানে ট্রেন্ডস বিষয় নিয়ে কন্টেন্ট লেখেন। তখন আপনাকে গুগুলে সার্চ করে জানতে হবে বর্তমানে কোন টপিকস নিয়ে আলোচিত হচ্ছে সে বিষয়ে আপনাকে র্আটিকেল লিখতে হবে। তারপর বাংলাদেরশের কোন বায়ার আপনাকে বললো বর্তমানে বাংলাদেশে কোন মোবাইলের চাহিদা বেশি। তখন আপনাকে গুগুলে খোজে বের করে সে মোবাইল সম্পর্কে তুলে ধরতে হবে।

৩. গুগুল নিউজ :

পৃথিবীতে হাজার হাজার পত্রিকা রয়েছে সব গুলো পত্র পত্রিকা সবার পক্ষে পড়া সম্ভব না। তাই আপনাকে কি করতে হবে গুগুল নিউজের স্বরণাপন্ন হতে হবে। কারন গুগুলে সব সময় লেটেস্ট খবর পাওয়া যায়। পৃথিবীতে যখনই কোন আলোচিত ঘটনা ঘটে থাকে তখন তা গুগুল নিউজে প্রকাশিত হয়। তাই কোন লিটেস্ট খবর পেতে হলে গুগুল নিউজ পড়া দরকার। এখানে সবসময় আপডেট খবর পাওয়া যায়।

৪. গুগুল এলার্ট :

গুগুল এলার্ট হচ্ছে কোন জরুরী সংবাদ জানতে হলে গুগুল এলার্টের প্রয়োজন। ধরুন আপনি একজন স্বর্ন ব্যবসায়ী। কখন স্বর্নের দাম কমে গেল বা বেশি হলো তা জানতে হলে গুগুল এলার্টের প্রয়োজন। কারন গুগুল এলার্ট এ এলার্ট সেট করে রাখলে সংগে সংগে আপনাকে ম্যাসেজের মাধ্যমে খবর জানাবে দাম কখন কমে গেল বা বেশি হলো। এ রকম ভাবে আপনি যে ব্যবসায় করেন না কেন। সে বিষয়ে এলার্ট সেট করে রাখবেন সংগে সংগে আপনাকে ম্যাসেজ করে জেনে দিবে।

৫. গুগুল বকুস :

গুগুল বকুস হচ্ছে যেখানে হাজার হাজার বই আপলোড দেওয়া আছে। এখানে থেকে যে কোন বই ডাউনলোড করে পড়তে পারবেন। ওয়েব রিসর্চের ক্ষেত্রে গুগুল বকুস কেন ? কারন ওয়েবে অনেক সময় কোন তথ্য পাওয়া যায় না তাই আপনাকে কোন বইয়ের স্বরণাপন্ন হতে হবে। তথন গুগুল বকুস থেকে বই ডাউনলোড করে জেনে নিতে পারবেন।

৬. গুগুল স্কলার :

গুগুল স্কলার হচ্ছে রিসার্চ সেন্টার বা গবেষনা কেন্দ্র। কোন কিছু গবেষনা মুলক তথ্য জানতে হলে গুগুল স্কালারে রিচার্স রিপোর্ট সমূহ পাওয়া যাবে। এখান থেকে রিপোর্ট সংগ্রহ করে ওয়েব রিসার্চ এর কাজে লাগাতে পারেন। গুগুল স্কলারে গবেষনা মূলক নিবন্ধ পাবেন।

৭. গুগুল এনালাইটিকস :

গুগুল এনালাইটিকস হচ্ছে কোন ওয়েব সাইটের সকল তথ্য গুগুল এনালাইটিক বিশ্লেষন করে উপস্থাপন করে থাকে। ধরুন আপনার কোন ওয়েবসাইট আছে তা গুগুল এনালাইটিসে সাবমিট করুন। তাহলে গুগুল এনালাইটিকস আপনাকে সকল সেক্টরের খবর জানাবে। আপনার ওয়েবসাইটে কতজন ট্রাফিক আসলো, কতজন ছেলে, কতজন মেয়ে, কোন দেশ থেকে সার্চ করছে, কোন টপিক সার্চ করছে ইত্যাদি ইত্যাদি তথ্য জানতে পারবেন।

৮. গুগুল ম্যাপ :

গুগুল ম্যাপ হচ্ছে পৃথিবীর সকল লোকেশন সম্পর্কে আমরা গুগুল ম্যাপ থেকে জানতে পারবো। ম্যাপ সম্পর্কে আমাদের কম বেশি ধারনা সবারই রয়েছে। আমরা কোন জায়গা সম্পর্কে খোজতে গেলেই ম্যাপের স্বরনাপন্ন হই। তাই কোন এলাকা বা লোকেশন সম্পর্কে জনতে হলে গুগুল ম্যাপে গিয়ে সেই জায়গার উপর কার্চর রেখে রাইট বাটনে ক্লিক করে ”সার্চ নিয়ার বাই” এ ক্লিক করুন। তারপর সে জায়গার নাম লিখুন তাহলে সকল তথ্য জানতে পারবেন।

৯. প্রেস রিলিস সাইট :

প্রেস রিলিস সাইট হচ্ছে ”র” ইনফরমেশনের আধার। এখানে প্রথমে সকল উল্লেখযোগ্য খবর প্রকাশিত হয়। বিশ্বে যখনই কোন উল্লেখযোগ্য ঘটনা ঘটে তা প্রথমে প্রেস রিলিস সাইট গুলোতে প্রকাশিত হয়। বিভিন্ন প্রেস রিলিস সাইট রয়েছে তার মধ্যে একটি হলো Wikileaks । এই ধরনের সাইট গুলোথেকে বাংলাদেশ সহ বিশ্বে বিভিন্ন দেশ থেকে খবর সংগ্রহ করে স্থানীয় পত্রিকা গুলোতে প্রাকাশ করে থাকে। এগুলো থেকে আমরা তথ্য সংগ্রহ করতে পারি।

১০. কোরা :

কোরা হচ্ছে Question & Answer site. এখানে যে কেহ প্রশ্ন করতে পারে এবং উত্তর দিতে পারে। এ সাইটে আপনার কোন বিষয় জানার বিষয় থাকলে তা প্রশ্ন করতে পারেন। অনেক বিশেষজ্ঞ তার উত্তর দিয়ে থাকেন্। আপনাকে কি করতে হবে প্রথমে এ সাইটে গিয়ে রিজেষেট্রশন করতে হবে। তারপর প্রশ্ন করতে পারেন। আপনার প্রশ্নের উত্তর পেয়ে যাবেন।

১১. Who.is :

হো ইজ কি ? হো ইজ হচ্ছে এখানে কোন ওয়েব সাইটের নাম লিখে সার্চ করলে সেই ওয়েব সাইটের মালিকের নাম, ঠিকান, মোবাইল নম্বার, ইমেইল এড্রেস সহ সকল তথ্য পাওয়া যাবে। অর্থাৎ ওয়েব সাইট খোলার সময় যে সকল তথ্য দিয়ে ছিল সে সকল তথ্য পাওয়া যাবে।

১২. ইয়োলো পেজেস :

Yelp.com & Yellow.com পেজের মাধ্যমে বায়ারের কাঙ্খিত তথ্য খোজে বের করে প্রোভাইট করতে পারেন। এখানে ওয়েব সাইটের নাম লিখে সার্চ করুন। দেখবেন ওয়েব সাইটে দেওয়া সকল তথ্য আপনার সামনে উপস্থাপিত হবে। এই ইয়লো পেজের মাধ্যমে ওয়েব রিসার্চ করতে পারেন।

১৩. সার্চ ইন্জিন :

অনলাইন জগতে যারা বিচরন করে তারা সার্চ ইন্জিন সম্পর্কে কম বেশি জানেন। সকলে গুগুল সম্পর্কে বেশি জানেন। কিন্তু গুগুল ছাড়াও অসংখ্য সার্চ ইন্জিন রয়েছে। যেমন : বিং, ইয়াহু, বাইডু, এওয়াল, ডাকডাগ প্রভৃতি সার্চ ইন্জিন রয়েছ্। সে গুলো সম্পর্কেও আমাদের ধারনা থাকতে হবে। এছাড়া বাংলাদেশের সার্চ ইন্জিন রয়েছে ”পিপিলিকা” । পিপিলিকাও অনেক সময় বিভিন্ন কাজে লাগতে পারে।

১৪. লিংকদিন :

লিংকদিন একটি সোসাল মিডিয়া সাইট। এখানে অসংখ্য বায়ারের খনি। এখানে বিভিন্ন দেশের বায়ারের সমাবেশ ঘটে। সোসাল মিডিয়ায় প্রথম স্থানে রয়েছে ফেসবুক, ‍দ্বিতীয় স্থানে আছে টুইটার, তৃতীয় স্থানে রয়েছে লিংকদিন। লিংকদিনে একাউন্ট খুলুন। এখানে থেকে বায়ারের সংস্পর্শে আসতে পারলে বিভিন্ন ধরনের কাজের সন্ধান পেতে পারেন। এ ছাড়া বিভিন্ন এলাইট পার্সনের ঠিকানা, মোবাইল নম্বার, ইমেইল নম্বার পেতে পারেন।

১৫. লাইটশর্ট সফটওয়ার :

লাইটশর্ট একটি স্কিন শর্ট নেয়ার সফটওয়ার। আপনি যদি কোন কাজের প্রমান হিসাবে রাখতে চান এই সফটওয়ারের মাধ্যমে স্কীনশর্ট নিতে পারেন। বায়ারকে কোন কাজের প্রুফ দেখাতে চাইলে স্কীনশর্ট দিয়ে কাজের প্রমান দেখাতে পারেন। এই সফটওয়ারে রেজিষ্ট্রেশন করে ডাউনলোড দিয়ে ইনিষ্টল দিয়ে রাখুন। একটি প্রয়োজনীয় সফটওয়ার। বিভিন্ন কাজের প্রমানে স্বাক্ষর রাখে।

প্যাক্টিক্যালি ওয়েব রিসার্চ ( Web research ) এর একটি কাজ তুলে ধরা হলো :

এখানে একটি কাজের সেম্পল হিসাবে তুলে ধরার চেষ্টা করছি। ধরুন, কোন বায়ার আপনাকে একটি কাজ দিল যে নিউইয়ার্ক শহরের রেস্টুরেন্ট গুলোর মালিকের নাম, মোবাইল নম্বার, ওয়েবসাইট, ইমেইল এবং ফেসবুক আইডি খোজে বের করে দেও। তখন আপনি কি করবেন ? এই তথ্য গুলো বের করার জন্য আপনাকে গুগুল ম্যাপে যেতে হবে। গুগুল ম্যাপে নিউইয়ার্ক শহর লিখে সার্চ করুন।

Map : Map

তারপর মেইন পয়েন্টে কার্চর রেখে রাইট বাটনে ক্লিক করুন। দেখবেন একটি ড্রপ ডাউন লিস্ট আসবে। সেখান থেকে সার্চ নিয়ার বাইয়ে ক্লিক করুন। তারপর তাতে রেস্টুরেন্ট লিখে সার্চ করুন। দেখবেন অসংখ্য রেস্টুরেন্টের নাম দেখতে পাবেন।

Restaurants :Resturents

সেখানে রেস্টুরেন্টের ওয়েবসাইট, ঠিকানা, ইমেইল, মোবাইল নম্বার ইত্যাদি তথ্য পেয়ে যাবেন। সে গুলো তথ্য নিয়ে গুগুল স্প্রেডশীটে সকল তথ্য লিখে বায়ারের নিকট প্রোভাইড করতে পারবেন। এভাবে ওয়েব রিসর্চের মাধ্যমে বায়ারের কাজ জমা দিতে পারবেন।

অনলাইন থেকে আয় করতে হলে দেখুন : https://www.ictcorner.com/online-income/

উপরোক্ত তথ্য উপাত্ত গুলোর ভিত্তিতে ওয়েব রিসার্চ করে আপনার বা বায়ারের তথ্য খোজে বের করতে পারবেন। ওয়েব রিসার্চ ( Web research ) করতে হলে আপনাকে অনলাইনে ইন্টারনেট ও ওয়েব সার্চ সম্পর্কে মোটামুটি ভালো ধারনা থাকতে হবে। অনলাইনে আপওয়ার্ক, ফাইভার, ফ্রিল্যান্সিং সাইটে প্রচুর ওয়েব রিসার্চ এর কাজ পাওয়া যায়। এ গুলোতে কাজ করে একটা ভালো পরিমান আয় করতে পারবেন।

Related posts

Leave a Comment