টিন সার্টিফিকেট বাতিল করার নিয়ম (Rules for revoking TIN certificate)

Rules for revoking TIN certificate

টিন সার্টিফিকেট একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ন বিষয়। যারা কর সীমার অন্তভূর্ক্ত তাদের টিন সার্টিফিকেট থাকা আবশ্যক। টিন সার্টিফিকেট আমাদের বিভিন্ন কাজের প্রয়োজনে ব্যবহার করা লাগতে পারে। যেমন : জমি ক্রয় করতে প্রয়োজন পড়তে পারে, ব্যাংকে লোন নিতে গেলে প্রয়োজন পড়তে পারে, ব্যবসা করতে গেলে প্রয়োজন পড়তে পারে। তাই আপনার টিন সার্টিফিকেট খোলে রাখা ভালো। জরুরী প্রয়োজনে ব্যবহার করতে পারবেন। টিন সার্টিফিকেট খোলার জন্য এনবিআর এর অফিসে যেতে হয় না। আপনি ঘরে বসে টিন সার্টিফিকেট খোলতে পারবেন। আপনি টিন সার্টিফিকেট কিভাবে খোলবেন জানতে হলে নিচে দেওয়া লিংকে ক্লিক করে আর্টিকেলটি পড়ুন। টিন সার্টিফিকেট খোলা যেমন জরুরী তেমনি টিন সার্টিফিকেট বাতিল করাও জরুরী। কারন অনেক সময় টিন সার্টিফিকেট বাতিল করা না হলে আপনাকে ঝামেলায় পড়তে হয়। টিন সার্টিফিকেটের প্রয়োজন ফুরিয়ে গেলে আমরা টিন সার্টিফিকেট অবশ্যই বাতিল করতে পারবো। আজকে আমরা জানবো কিভাবে টিন সার্টিফিকেট বাতিল (Rules for revoking TIN certificate) করতে হয়। কিভাবে বাতিল করতে হয় জানতে হলে আর্টিকেলটি ভালো ভাবে পড়ুন।

পড়ৃন :

কিভাবে টিন সার্টিফিকেট খোলবেন।

টিন সার্টিফিকেট বাতিলের কারন :

একবার কেউ টিন সার্টিফিকেট খোললে তা সহজে বাতিল করা যায় না। টিন সার্টিফিকেট বাতিল করতে হলে যথপোযুক্ত কারন থাকতে হবে। নিম্নোক্ত কারনে টিন সার্টিফিকেট বাতিল করতে পারবেন। কারন গুলো হলো :

  • যদি কোন ব্যক্তি মৃত্যুবরন করেন তাহলে তার ওয়ারিশগন টিন সার্টিফিকেট বাতিল করতে পারবেন।
  • যদি কেহ বিশেষ কোন কারলে টিন সার্টিফিকেট খোলার পর আয়কর দেওয়ার সক্ষমতা হারিয়ে ফেলেন বা আয়কর শুন্য হয়ে পড়েন তখন তিনি টিন সার্টিফিকেট বাতিল করতে পারবেন।

টিন সার্টিফিকেট বাতিল করার নিয়ম (Rules for revoking TIN certificate) :

টিন সার্টিফিকেট খোলার পর তা বতিল করার নিয়ম অনলাইনে কোন সিস্টেম নেই। টিন সার্টিফিকেট বাতিল করতে হলে আপনাকে আপনার নির্ধারিত কর অঞ্চল অফিসে যেতে হবে। কর অফিসের সংশ্লিষ্ট নিয়ম মেনে আপনাকে আবেদন করতে হবে। টিন সার্টিফিকেট বাতিল করতে হলে আপনাকে পর পর তিনবার কর শুন্য আয়কর রিটার্ন দাখিল দেখাতে হবে। তারপর আপনার Tax Circle এর উপ-কর কমিশন বরাবরে টিন সার্টিফিকেট রেজিষ্ট্রেশন বাতিলের জন্য আবেদন করতে হবে। সঙ্গে পূর্বের আয়কর রিটার্ন দাখিলের রশিদ, জাতীয় পরিচয় পত্র, টিন সার্টিফিকেট ইত্যাদি দাখিল করতে হবে। মনে রাখবেন দুটি কারনেই কেবল টিন সার্টিফিকেট বাতিল করা যায় : 1. করদাতা মারা গেলে। 2. করযোগ্য আয় না থাকলে।

1. করদাতা মারা গেলে :

টিন সার্টিফিকেট ধারী কোন ব্যক্তি মারা গেলে ভবিষ্যতে কোন প্রতিষ্ঠানের বা ব্যবসায়িক প্রয়োজনে টিন সার্টিফিকেট ব্যবহার প্রয়োজন না পড়লে তার ওয়ারিশগন টিন সার্টিফিকেট রেজিষ্ট্রেশন বাতিলের জন্য আবেদন করতে পারবেন। উপ-কর কমিশনার হেয়ারিংয়ের মাধ্যমে যথপোযুক্ত কারনের ভিত্তিতে তা স্থগিত বা বাতিল করতে পারেন। সঙ্গে নিম্নোক্ত কাগজ পত্র দাখিল করতে হবে।

  • ওয়ারিশ কর্তৃক আবেদন পত্র।
  • টিন সার্টিফিকেট কপি।
  • পূর্ববর্তী আয়কর রিটার্ন দাখিলের রশিদ বা প্রত্যয়ন পত্র।
  • করদাতার মৃত্যু সনদের কপি।
  • করদাতার জাতীয় পরিচয় পত্র।

2. করযোগ্য আয় না থাকলে :

করযোগ্য আয় না থাকলে প্রতি বছর আয়কর রিটার্ন দাখিল করা একটি ঝামেলাপূর্ন কাজ। বিশেষ কোন কারনে টিন সার্টিফিকেট রেজিষ্ট্রেশন করে থাকলে করদাতা পরবর্তীতে আয়কর সীমার অন্তর্ভূক্ত না হলে তিনি টিন সার্টিফিকেট বাতিলের জন্য আবেদন করতে পারবেন। আমরা জানি যে, কোন পুরুষ ব্যক্তি বাৎসরিক 300000 টার উপরে আয় করলে এবং কোন মহিলার বয়স 65 বছরের উপরে হয় এবং তিনি 350000 টাকার উপরে আয় করে থাকলে তখন তাকে আয়কর দিতে হবে। কেহ যদি এই আয়কর সীমার অন্তর্ভূক্ত না হয়ে থাকে তাহলে তাকে আয়কর দিতে হবে না। তবে বিশেষ প্রয়োজনে টিন সার্টিফিকেটের প্রয়োজন পড়ে। কেউ যদি প্রয়োজনে টিন সার্টিফিকেট খোলে থাকেন তখন তাকে প্রতি বছর আয়কর রিটার্ন দাখিল করতে হয়। এই আয়কর রিটার্ন দাখিল থেকে মুক্তি পেতে বা টিন সার্টিফিকেট বাতিল করতে চাইলে নির্ধারিত পদ্ধতিতে আবেদন করে টিন সার্টিফিকেট বাতিল করতে পারেন। সঙ্গে নিম্নোক্ত কাগজ পত্র দাখিল করতে হবে।

  • লিখিত আবেদন।
  • টিন সার্টিফিকেট কপি।
  • পূর্ববর্তী আয়কর রিটার্ন দাখিলের রশিদ বা প্রত্যয়ন পত্র।
  • করদাতার জাতীয় পরিচয় পত্র।

পড়ুন:

কিভাবে পাওয়ার পয়েন্ট দিয়ে সেলাইড শো তৈরি করবেন।

কিভাবে প্যাসিভ ইনকাম করবেন

শেষ কথা :

টিন সার্টিফিকেট ব্যাক্তি বিশেষের জন্য খুবই প্রয়োজন। টিন সার্টিফিকেট ছাড়া অনেক কাজ করতে পারবেন না। আবার কারো জন্য টিন সার্টিফিকেট বাতিল করা প্রয়োজন। মানুষ মারা গেলে টিন সার্টিফিকেটের প্রয়োজন পড়বে না এটা স্বাভাবিক কথা। তারপরও তাকে টিন সার্টিফিকেট বাতিল (Rules for revoking TIN certificate) করতে হবে। আবার কেহ করযোগ্য আয় না থাকলেও তাকে টিন সার্টিফিকেট বাতিল করতে হবে।কারন প্রতি বছর আয়কর রিটার্ন দাখিল করার মতো একটি ঝামেলা পূর্ন কাজ করতে হয়। যাইহোক উভয় করদাতাই যথাযথ প্রক্রিয়া অবলম্বন করে টিন সার্টিফিকেট বাতিল করতে পারবেন। আশা করি বিষয়টি সবার কাছে পরিষ্কার। ধন্যবাদ।

Related posts

Leave a Comment