গুগল মাই বিজনেস কি এবং কিভাবে Google My Business একাউন্ট তৈরি করবেন।

Google my business

বর্তমান জগত ডিজিটাল জগত। ডিজিটাল জগতে ব্যবসা করতে চাইলে ডিজিটাল প্লাটফর্ম প্রয়োজন। আর গুগুল মাই বিজনেস একটি ডিজিটাল প্লাটফর্ম। এখানে একাউন্ট করতে বা বিজনেস পেজ তৈরি করতে কোন খরচা নেই। বিনা খরচে একটি বিজনেস পেজ তৈরি করতে পারবেন। শুধু তাই না ব্যবসাকে প্রমোট করতে পারবেন। তাই গুগুল মাই বিজনেস একটি গুরুত্বপূর্ন সার্ভিস। ইহার মাধ্যমে ব্যবসায়ী এবং কাস্টমারের মধ্যে কানেক্টিভিটি বৃদ্ধি পায়। আজকে আমরা আলোচনা করবো গুগুল মাই বিজনেস কি এবং কিভাবে Google My Business একাউন্ট তৈরি করবেন।

গুগুল মাই বিজনেস (Google My Business) কি :

গুগুল মাই বিজনেস গুগুলের একটি সার্ভিস। ইহা বিনা খরচায় আপনার ব্রান্ড বা ব্যবসাকে পরিচালনা করার সুযোগ দিয়ে থাকে। গুগুল মাই বিজনেস লোকাল এস ই ও এর একটি পার্ট। গুগুল মাই বিজনেস পেজ তৈরি এবং ভেরিফাইয়ের মাধ্যমে আপনার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে গুগুলের প্রথম পেজে আনতে পারবেন। তাতে আপনার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের পরিচিতি বৃদ্ধি পাবে এবং সেল জেনারেট বৃদ্ধি পাবে। তাই গুগুল মাই বিজনেস পেজ হচ্ছে ব্যবসা পরিচালনার ক্ষেত্রে একটি ইফেস্টিভ ওয়ে। যার মাধ্যমে বিনা খরচায় আপনার ব্যবসা পরিচালনা করতে পারবেন।

কিভাবে গুগুল মাই বিজনেস একাউন্ট তৈরি করবেন :

গুগল মাই বিজনেস একাউন্ট তৈরি করতে হলে একটি জিমেইল আইডি থাকতে হবে। জিমেইল আইডি থাকলে ভালো। আর না থাকলে এই লিংক থেকে একটি জিমেইল আইডি খুলে নিন। লিংকটি হলো https://www.ictcorner.com/email/ . তারপর একটি ব্রাউজার ওপেন করুন। তাতে https://www.google.com/business/ লিখে ওপেন করুন। এখানে আপনার সকল তথ্য দিয়ে সাইন ইন করুন। তারপর নিচের মতো একটি ইন্টারফেস দেখতে পাবেন।

Screenshot_7

এখানে লাল তীর চিহ্ন দিয়ে দেখানো জায়গার আপনার বিজনেস নেম লিখুন। তারপর Add your business to google এ ক্লিক করুন। তাহলে নিচের মতো একটি ইন্টারফেস দেখতে পাবেন।

Screenshot_8

এখানে লাল তীর চিহ্ন দেওয়া দুটিতে আপনার বিজনেস নেম এবং বিজনেস কোন ক্যাটাগরির তা লিখে দিন। তারপর নেক্সট বাটনে ক্লিক করুন। নিচের মতো ইন্টারফেস দেখতে পাবেন।

Screenshot_9

এখানে কাস্টমারদের আপনার অন্য কোন স্টোর বা অফিস ভিজিট করাতে চাইলে Yes না চাইলে No তে ক্লিক দিয়ে নেক্সট বাটনে ক্লিক করুন। তারপর নিচের মতো একটি ইন্টারফেস দেখতে পাবেন।

Screenshot_10

এখানে লাল তীর চিহ্ন দেওয়া জায়গা গুলোতে আপনার বিজনেসের ঠিকানা দিতে হবে। প্রথমে দেশের নাম সিলেক্ট করে দিন। তারপর স্টিরিট এড্রেস অর্থাৎ আপনার দোকানের ঠিকানা লিখুন। সিটির জায়গায় আপনার শহরের নাম লিখুন। পোস্টাল কোডের জায়গার আপনার পোষ্ট অফিসের কোড নম্বার বসান। তারপর নেক্সট বাটনে ক্লিক করুন। এবার নিচের মতো ইন্টারফেস দেখতে পাবেন।

Screenshot_11

এখানে গুগুল ম্যাপ দেখতে পাচ্ছেন। ম্যাপে আপনার দোকান কোন জায়গায় তা সেট করে দিন। অর্থাৎ লাল ট্রাফিকটা নির্ধরিত স্থানে বসিয়ে দিন। তারপর নেক্সট বাটনে ক্লিক করুন। নিচের মতো ইন্টারফেস দেখতে পাবেন।

Screenshot_12

এখানে আপনার বাহিরের কাস্টমারদের জন্য ডেলিভেরি সিস্টেম চালু আছে কিনা জানতে চাচ্ছে। থাকলে Yes না থাকলে No সিলেক্ট করে নেক্সট বাটনে ক্লিক করুন। তারপর নিচের মতো ইন্টারফেস দেখতে পাবেন।

Screenshot_13

এই ইন্টারফেসে আপনি কোন কোন এরিয়ার মধ্যে আপনার সার্ভিস দিতে চান তা লিখে দিন। তারপর নেক্সট বাটনে ক্লিক করুন নিচের মতো ইন্টারফেস দেখতে পাবেন।

Screenshot_14

এখানে আপনার ভেলিড মোবাইল নম্বার বসান। তারপর আপনার ওয়েবসাইট থাকলে ওয়েবসাইটের ইউ আর এল দিন। না থাকলে আপনার ফেসবুক আইডির ইউ আর এল দিন। তাও না থাকলে i don’t need a website বৃত্ত ভরাট করুন। তারপর নেক্সট বাটনে ক্লিক করুন। নিচের মতো ইন্টারফেস দেখতে পাবেন।

Screenshot_15

এখানে ভেরিফাই করতে হবে। এখানে আপনার নাম লিখে Mail বাটনে ক্লিক করুন। গুগুল আপনাকে 14 দিন পর একটি কোড সম্বলিত চিঠি পাঠাবে। সেই কোড লিখে সাবমিট করলে আপনার পেজে ভেরিফাই হয়ে যাবে। এরপর Continue বাটনে ক্লিক করুন Done . আপনার গুগল মাই বিজনেস একাউন্ট তৈরি হয়ে গেছে।

ড্যাশবোর্ড : নিচের ইন্টারফেস হচ্ছে আপনার ড্যাশবোর্ড।

Screenshot_16

উপরের চিত্রে আপনার ড্যাশবোর্ড বা হোম পেজ দেখতে পাচ্ছেন। এই ড্যাশবোর্ড থেকে আপনার পেজের সমস্ত কার্যক্রম পরিচালিত হবে। বাম পার্শে একটি লিস্ট দেখতে পাচ্ছেন। এখান থেকে Posts এর মাধ্যমে আপনার প্রোডক্টের পোস্ট করতে পারবেন। info থেকে আপনার সাইটের সকল তথ্য পুরুন এবং সংশোধন করতে পারবেন। insights থেকে আপনার পেজে কতজন ভিজিটর আসছে, কোন জায়গা থেকে আসছে ইত্যাদি তথ্য জানতে পারবেন। photos থেকে বিভিন্ন ফটো আপলোড করতে পারবেন। Website থেকে আপনি একটি ফ্রি ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন। সেখানে আপনার বিভিন্ন ফোটো, প্রোডাক্ট ইমেজ সহ বিভিন্ন তথ্য উপস্থাপন করতে পারবেন। Users থেকে আপনি কাউকে এডিটর বা এডমিন বানাতে পারবেন। মোট কথা এই ড্যাশবোর্ড থেকে আপনার সমস্ত কার্যাদি প্রোমোট করতে পারবেন। তবে আপনার পেজ গুগুল কর্তৃক ভেরিফাই হতে হবে। গুগুল পেজ ফেরিফাই হতে ১৪ দিন থেকে ১ মাস সময় নিতে পারে। এর ভিতরে ভেরিফাইয়ে চিঠি না পেলে আবার নতুন করে আবেদন পাঠাতে হবে।

পড়ুন :

কিভাবে লোকাল এস ই ও করবেন

পরিশেষে উল্লেখ যে গুগল মাই বিজনেস (Google My Business) পেজে আপনার দেওয়া সকল তথ্য সংরক্ষন করে রাখুন। এ গুলো আপনার এস ই ও করার সময় লাগতে পারে। আপনার বিজনেস নেম, ক্যাটাগরি, এড্রেস, মোবাইল নম্বার, ওয়েবসাইট যে ভাবে লিখেছেন হুবহু সেভাবে দরকার হতে পারে। নতুবা গুগুলে আপনার পেজ সঠিক ভাবে উপস্থাপিত হবে না। গুগুল মাই বিজনেস পেজ একটি অত্যন্ত কার্যকরী ওয়ে। যা আপনার ব্যবসার সাফল্য বয়ে আনতে অনন্য ভূমিকা রাখতে পারে। তাই গুগুল মাই বিজনেস একাউন্ট তৈরি করুন এবং বিনা খরচায় ব্যবসা পরিচালনা করুন।

Related posts

3 Thoughts to “গুগল মাই বিজনেস কি এবং কিভাবে Google My Business একাউন্ট তৈরি করবেন।”

  1. ধন্যবাদ আপনাকে গুগল মাই বিজনেস নিয়ে সুন্দর করে লিখার জন্য।

Leave a Comment