ওয়েবসাইট গুগুল ফাস্টপেজে (Google Fast page) আসার গুরুত্বপূর্ন 5টি টিপস

Google fast page

ওয়েবাইটকে গুগুল ফাস্টপেজে (Google Fast Page) আনা খুব ক্রেটিকেল বিষয়। আমরা সবাই চাই আমার ওয়েবসাইট গুগুল ফাস্ট পেজে আসুক। কিন্তু আমরা জানিনা কিভাবে একটি ওয়েবসাইটকে গুগুল ফাস্ট পেজে নিয়ে আসা যায়। গুগুল ফাস্ট পেজে একটি ওয়েবসাইটকে নিয়ে আসা মানে তার ভিজিটর বৃদ্ধি পাওয়া। আর ভিজিটর বৃদ্ধি পাওয়া মানে তার ওয়েবসাইট দ্রুত র‌্যাংন্কিয়ে এগিয়ে যাওয়া। গুগুলে একটি ওয়েবসাইট টপ র‌্যাংকে উঠতে পারলে সে সাইটের গুরুত্ব বাড়বে। সে সাইটের ইনকামের পথ খুলে যাবে। তখন বিভিন্ন উপায়ে ইনকাম করতে পারবে। সহজে বিজনেস করতে পারবে, এফিলিয়েট মার্কেটিং করতে পারবে, নিজের কোন প্রোডাক্ট সেল করতে পারবে, গুগুল এডসেন্স এপ্রোভাল পাবে ইত্যদি উপায়ে আয় করতে পারবে। তাই কিভাবে একটি ওয়েবসাইটকে গুগুল ফাস্ট পেজে নিয়ে আসা যায় তার গুরুত্বপূর্ন টিপস আপনাদের মাঝে শেয়ার করার চেষ্টা করছি। আশা করি আজকের এই টিপস গুলো ফলো করলে আপনার ওয়েবসাইটকে গুগুলের ফাস্ট পেজে নিয়ে আসতে পারবেন।

গুগুল ফাস্ট পেজে (Google Fast Page) আসার 5টি টিপস :

কোন কিওয়ার্ড বা ওয়েবসাইটকে গুগুলে র‌্যাংক করার 200টির উপর র‌্যাংকিং ফ্যাক্টর রয়েছে। এর মধ্যে কিছু কার্যকরি আর কিছু বিতর্কিত। আমরা সব সময় কার্যকরি উপায় গুলো ফলো করার চেষ্টা করবো। এত গুলো র‌্যাংকিং ফ্যাক্টর থেকে মাত্র 5টি টিপস ফলো করলেই আপনার ওয়েবসাইট গুগুলের ফাস্ট পেজে আসা সম্ভব। হয়তো ভাবছেন এটা কি আদৌ সম্ভব। একবার করেই দেখুন না ? আপনার ওয়েবসাইট এক সপ্তাহ থেকে চার সপ্তাহের মধ্যে গুগুলের ফাস্ট পেজে চলে আসবে। তবে আপনার ডোমেন নেম ইউনিক হতে হবে এবং হোস্টিং ভালো কোন কোম্পানীর হতে হবে।

প্রথম টিপস – গুগুলে ইনডেক্স করা :

প্রথমে আপনার ওয়েবসাইটকে Google search console এর মাধ্যমে গুগুলে ইনডেক্স করতে হবে। https://search.google.com/search-console এই লিংকের মাধ্যমে প্রবেশ করে আপনার সাইটকে ইনডেক্স করতে হবে। এই সাইটে প্রবেশ করার পর Add Property তে ক্লিক করবেন তাহলে নিচের মতো একটা এন্টারফেস দেখতে পাবেন।

Search Console :

Search Console

এই ইন্টারফেসে দুটি লাল আয়তাকার ঘর দেখতে পাচ্ছেন প্রথমটিতে নিচে লাল তীর চিহ্ন দেওয়া ঘরে শুধু ডোমেন নেম লিথে Continue করতে পারেন। আবার আপনার ডোমেনে যদি ‍SSL সার্টিফিকেট যুক্ত হয়ে থাকে তাহলে দ্বিতীয় ঘরে অর্থাৎ URL Prefix এর নিচে লাল তীর চিহ্ন দেওয়া ঘরে আপনার সাইটের লিংক বসিয়েও Continue করতে পারেন। তারপর একটি পেজ আসবে সেখানে একটি লিংক পাবেন। সেই লিংক আপনার সাইটের থিমের হেডের মধ্যে বসিয়ে দিবেন। তারপর সার্চ কনসোলে এসে ভেরিফাইয়ে ক্লিক করুন। বাস আপনার ওয়েবসাইট গুগুলে ইনডেক্স হয়ে যাবে।

দ্বিতীয় টিপস – সাইট ম্যাপ সেটাপ করা :

সাইট ম্যাপ একটি ওয়েবসাইটের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ন বিষয়। গুগুল সার্চ কনসোলে সাইট ম্যাপ সবমিট করতে হবে। গুগুল সার্চ কনসোলে প্রবেশ করলে নিচের মতো ইন্টারফেস দেখতে পাবেন।

Sitemap :

Sitemap

এই ইন্টারফেসে সাইট বার দেখতে পাচ্ছেন। এখানে লাল তীর চিহ্ন দেওয়া Sitemap এ ক্লিক করুন। তারপর লাল আয়াতাকার ঘরে আপনার সাইটের নাম লিখূন এবং পাশে /XML লেখা যুক্ত করে সাবমিট করুন। কিছুক্ষন অপেক্ষা করুন আপনার সাইট সাকসেস দেখাবে।

তৃতীয় টিপস – ম্যাটা ডিসক্রেপশন ও ম্যাটা কিওয়ার্ড সেটাপ করা :

ম্যাটা ডিসক্রেপশন হচ্ছে একটি সাইট কি নিশ রিলেটেড তার একটি সংক্ষিপ্ত বিবরন। তাই আপনার সাইট রিলেটেড 150 শব্দের মধ্যে কিছু লিখে ওয়েবসাইটের ব্যাকইন পেজে বা ওয়েবসাইটের থিমে যুক্ত করতে হবে। এছাড়া ম্যাটা কিওয়ার্ড হচ্ছে আপনার ওয়েবসাইট সম্পর্কিত কিওয়ার্ড। আপনার সাইট সম্পর্কিত 5টি কিওয়ার্ড সেটাপ করতে হবে। এই ম্যাটা ডিসক্রেপশন ও ম্যাট কিওয়ার্ড কোন সাইটকে র‌্যাংকিংয়ে গুরুত্বপূর্ন ভুমিকা পালন করে থাকে। তবে অবশ্যই ম্যাটা ডিসক্রেপশনে ও ম্যাটা কিওয়ার্ডের ভিতরে ডোমেন নেম থাকতে হবে।

চতুর্থ টিপস – ইমেজ ক্যাপশনে কিওয়ার্ড বা ডোমেন নেম সেটাপ করা :

ইমেজ একটি ওয়েবসাইটের পরিচিতি বৃদ্ধি করে। ইমেজের মাধ্যমে একটি ওয়েব সাইটকে সহজে চিনা যায়। তাই আপনার সাইটে কোনো ইমেজ সেটাপ করার সময় ইমেজের ক্যাপশনে আপনার ওয়েবসাইটের ডোমেন নেম যুক্ত করতে হবে। তাহলে আপনার ওয়েবসাইট দ্রুত গুগুলের ফাস্ট পেজে আসবে। ধরুন, বাংলাদেশের ম্যাপ ইমেজ দিলেন। তখন ইমেজ অল্টার ট্যাগের সাথে আপনার ডোমেন নাম লিখে দিবেন।

পঞ্চম টিপস – লেবেলে কিওয়ার্ড সেটাপ করা ও রোবট টেক্সট ফাইল সেটাপ করা :

ওয়েবসাইটে লেবেলে কিওয়ার্ড সেটাপ করা আসু প্রয়োজন। এখানে কিওয়ার্ড সেটাপ করা হলে কন্টেন্ট দ্রুত ইনডেক্স হয়। ওয়েবসাইটের কন্টেন্ট লিখার সময় লেবেলে কিওয়ার্ড সেটাপ করতে হয়। এই কিওয়ার্ডের সাথে ডোমেন নেম সেটাপ করতে হবে। তাহলে আপনার ওয়েবসাইট গুগুলের ফাস্ট পেজে আসার সম্ভাবনা বেড়ে যাবে। এছাড়া রোবট ডট টেক্সট ফাইল সেটাপ করতে হবে। গুগুল রোবট নির্দেশ করে কোন সাইট বা কোন কন্টেন্টকে ইনডেক্স করতে হবে আর কোনটাকে ইনডেক্স করতে হবে না। তাই আপনার ওয়েব সাইটের মধ্যে রোবট ডট টেক্সট ফাইল সঠিক ভাবে সেটাপ করতে হবে।

পড়ুন :

কিভাবে গুগুল টপে আসবেন

কিভাবে অনপেজ এস ই ও করবেন

পরিশেষে কথা হচ্ছে একটি ওয়েবসাইটকে গুগুলের ফাস্ট পেজে (Google Fast Page) নিয়ে আসতে হলে অনেক গুলো ফ্যাক্টর কাজ করে থাকে। যেমন : গুগুলে ইনডেক্স করা, সাইটম্যাপ সাবমিট করা, ম্যাটা ডিসক্রেপশন সেটাপ করা, ম্যাটা কিওয়ার্ড সেটাপ করা, ইমেজ অল্টার ট্যাগ দেওয়া, রোবট ডট টেক্সট ফাইল সেটাপ, ব্যাকলিংক করা ইত্যাদি। আর সোসাল মিডিয়া অর্থাৎ ফেসবুক, ইনিস্টাগ্রাম, টুইটার, লিংকদিন, রেডিট, পিন্টারিস্টে বেশি বেশি শেয়ার করতে হবে। এই কাজ গুলো সঠিক ভাবে সেটাপ করতে পারলে আপনার ওয়েবসাইট গুগুলের ফাস্ট পেজে অবশ্যই আসবে। আমি গুগুল ফাস্ট পেজে আসার বিভন্ন ফ্যাক্টর থেকে মাত্র 5টি ফ্যাক্টর আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম। যদি এই 5টি ফ্যাক্টর সঠিক ভাবে ইউটিলাইজ করতে পারেন আশা করি আপনার ওয়েবসাইট গুগুল ফাস্ট পেজে আসবে। আর্টিকেলটি যদি সামান্যতম আপনার উপকারে আসে তাহলে বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করতে ভুলবেন না। ধন্যবাদ।

Related posts

One Thought to “ওয়েবসাইট গুগুল ফাস্টপেজে (Google Fast page) আসার গুরুত্বপূর্ন 5টি টিপস”

  1. অসম্ভব সুন্দরভাবে লিখেছেন আপনি পোস্টটি

Leave a Comment