ফেসবুকে ভিডিও (Facebook Video) আপলোড করে লাখ টাকা আয় করুন

Facebook Video

ফেসবুক থেকে আয় করার বিভিন্ন মাধ্যম রয়েছে। তার মধ্যে অন্যতম হলো ফেসবুকে ভিডিও (Facebook Video) আপলোড করে আয় করা। ফেসবুকে ভিডিও আপলোড করে অনেকে লাখ লাখ টাকা আয় করছে। আপনিও ইচ্ছা করলে ফেসবুক থেকে লাখ টাকা আয় করতে পারেন। ফেসবুক আবাল বৃদ্ধ বনিতা সবাই কম বেশি ব্যবহার করে থাকে। আমরা অযথা ফেসবুকে সময় নষ্ট করে থাকি। কিন্তু আমরা জানিনা কিভাবে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করা যায়। ফেসবুক থেকে আয় করার বিভিন্ন মাধ্যম রয়েছে। যেমন : কোন প্রোডাক্ট আপলোড করে বিক্রি করে, ভিডিও আপলোড করে, ফেসবুকে বুসট করে, ফেসবুকে লেখালেখি করে ইত্যাদি মাধ্যমে আয় করা যায়। এই ধরনের আয় করতে হলে আপনার ইউনিক ফেসবুক আইডি থাকতে হবে, ফেসবুক পেজ থাকতে হবে, ফেসবুক গ্রুপ থাকতে হবে। ফেসবুক পেজকে সুন্দর ভাবে সাজাতে হবে, ফেসবুক গ্রুপকে একটি সুন্দর লুক দিতে হবে। ফেসবুক পেজে এবং ফেসুবক গ্রুপে লাইক ও ফলোয়ার বাড়াতে হবে। আপনি যদি সঠিক ভাবে একটি পেজ তৈরি করতে পারেন তাহলে সেখানে ভিডিও আপলোড করে লাখ টাকা ইনকাম করা সম্ভব।

ফেসবুক পেজ :

ফেসবুকে ভিডিও আপলোড করে আয় করতে হলে আপনার একটি ফেসবুক পেজ থাকতে হবে। ফেসবুক পেজ ছাড়া আপনি ফেসবুক আইডি বা গ্রুপে ভিডিও আপলোড করে আয় করতে পারবেন না। ভিডিও আপলোড করে আয় করতে হলে আপনার আইডির আন্ডারে একটি সুন্দর ফেসবুক পেজ খুলতে হবে। আপনার পেজকে সুন্দর ভাবে সাজাতে হবে এবং কাস্টমাইজ করতে হবে।। আপনার পেজে লোগো দিতে হবে, পেজের জন্য কভার ফটো সেট করতে হবে। একটি প্রফেশনাল মানের ফেসবুক পেজ কিভাবে তৈরি করবেন জানতে হলে নিচের লিংকে ক্লিক করে পড়ুন ’কিভাবে ফেসুবক পেজ তৈরি করবেন’।

পড়ুন :

কিভাবে ফেসবুক পেজ তৈরি করবেন

ফেসবুকে ভিডিও(Facebook Video) আপলোড করে লাখ টাকা আয় করুন :

ইউটিউবে ভিডিও আপলোড করে যেমন আয় করা যায় ঠিক তেমনি ফেসবুকেও ভিডিও (Facebook Video) আপলোড করে আয় করা যায়। ইউটিউবে ভিডিও আপলোড করে আয় করার নিয়ম কানুন কিছুটা সহজ। কিন্তু ফেসবুকে ভিডিও আপলোড করে আয় করার নিয়ম কানুন ইউটিউবের থেকে তুলনামুলক কঠিন। ইউটিউবে যেমন এডে কেউ ক্লিক করলে ইনকাম হয় ফেসবুকেও তেমনি এডে ক্লিক করলে ইনাকম হবে। ফেসবুক আপনার ভিডিওতে In Stream Ads দেখাবে। আপনার ভিডিওতে যখন কেউ এডে ক্লিক করবে তখন আপনার টাকা আয় হতে থাকবে। তবে ফেসবুকে ভিডিও আপলোড করে টাকা আয় করতে হলে কিছু শর্ত রয়েছে। শর্ত গুলো হচ্ছে :

1. আপনার ফেসবুক পেজে 10000 ফলোয়ার থাকতে হবে।

2. শেষ দুই মাসে অর্থাৎ 60 দিনে আপনার ফেসবুক পেজের ভিডিওতে 600000 ভিউস থাকতে হবে। প্রতিটি ভিউ কমপক্ষে এক মিনিটের হতে হবে। এছাড়া আপনার প্রতিটি ভিডিও কমপক্ষে তিন মিনিটের বেশি লম্বা হতে হবে। কেননা ফেসবুক 3 মিনিটের বেশি লম্বা ভিডিও ছাড়া কোনো এড বা বিজ্ঞাপন দেখায় না।

3. আপনার পেজে কমপক্ষে 5টি একটিভ ভিডিও থাকতে হবে।

4. আপনার বয়স কমপক্ষে 18 বছর হতে হবে।

5. ফেসবুকের Partner Monetization Policies মেনে ভিডিও তৈরি করতে হবে। নচেৎ মনিটাইজেশন পাবেন না।

ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন পলিসি ইস্যু :

ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন পলিসি ইস্যু অত্যন্ত গুরুত্ব পূর্ন। ফেসবুক পলিসি ইস্যু মেনে না চললে আপনার পেজে মনিটাইজেশন পাবেন না। তাই নিচের ইসু গুলো মেনে চলা আপনার জন্য আবশ্যক।

1. কপিরাইট ভিডিও :

কপিরাইট ভিডিও হচ্ছে অন্য কারো ভিডিও নিজের পেজে আপলোড করা যাবে না। তাহলে কপিরাইট আইনে ফেসে যাবেন। ফেসবুক যে কোনো সময় আপনার পেজকে ডিজাবল করে দিতে পারে। এতে আপনার ইনকামকৃত অর্থ আর কোনো দিনে তুলতে পারবেন না।

2. এডাল্ট কন্টেন্ট আপলোড :

এডাল্ট কন্টেন্ট হচ্ছে কোনে প্রকার সেক্সচুয়াল কন্টেন্ট নিজের পেজে আপলোড করা যাবে না। এছাড়া কোনো জাতি বা গোষ্ঠিকে গালিগালাজ করা জাতিয় কন্টেন্ট বা রক্তমাখা কোনো ভিডিও আপলোড করা যাবে না। এককথায় যে ধরনের কন্টেন্ট বা ভিডিও দ্বারা মানুষের কোনো ক্ষতি হওয়ার আসংকা থাকে বা ক্ষতি হয় এমন ধরনের কন্টেন্ট বা ভিডিও আপলোড করা যাবে না।

3. ফটো বা কভার ফটো :

ফটো, লোগো বা কভার ফটো দ্বিতীয়বার আপলোড দেওয়া যাবে না। অর্থাৎ আগে যদি আপনার কোন ফটো বা লোগো বা কভার ফটো কখনো ফেসবুকে আপলোড করে থাকেন। তাহলে দ্বিতীয়বার আর আপনার পেজে সেট করা যাবে না। তা রি-ইউজ কন্টেন্ট হিসাবে পরিগনিত হবে। যা ফেসবুক পলিসি সাপোর্ট করে না।

4. মিস লিডিং কন্টেন্ট :

মিস লিডিং কন্টেন্ট হচ্ছে আপনার পেজে যে ভিডিও আপলোড করেছেন। তার টাইটেল, ইমেজ, ডিসক্রেপশন একই ক্যাটাগরির হতে হবে। যদি ভিন্ন ভিন্ন হয় তাহলে সেটা মিস লিডিং কন্টেন্ট হিসাবে পরিগনিত হবে। ধরুন, আপনার টাইটেলে লিখেছেন কমেডি জাতীয় কিন্তু ভিতরে ডিসক্রেপশন লিখেছেন গান বা অন্য কিছু তাহলে কিন্তু হবে না। আপনার টাইটেল, ডিসক্রেপশন এবং থাম্বলিন একই জাতীয় হতে হবে। নতুবা মিস লিডিং হিসাবে গন্য হবে।

5. মিউজিক বা সাউন্ড :

আপনার ভিডিও এর ব্যাকগ্রাউন্ট মিউজিক বা সাউন্ট অন্য কারো থেকে নেয়া যাবে না। তাহলে কপিরাইট আইনে ফেসে যাবেন। ফেসবুক আপনার ভিডিও বাতিল করে দিতে পারে বা কোনো পানিসমেন্ট দিতে পারে। তাই অন্য কারো মিউজিক না নিয়ে নিজে মিউজিক তৈরি করতে পারেন বা ফেসবুক লাইব্রেরী থেকে মিউজিও নিতে পারেন। ফেসবুকের নিজস্ব লাইব্রেরিতে অনেক মিউজিক রয়েছে। সেখান থেকে মিউজিক নিয়ে আপনার ভিডিওতে ব্যবহার করতে পারেন।

6. ডুপ্লেকেট কন্টেন্ট :

ডুপ্লেকেট কন্টেন্ট হচ্ছে ধরুন আপনি আগে কোনো দিন একটি কন্টেন্ট ফেসবুকে আপলোড করেছেন পরে আবার সেই কন্টেন্ট আপনার পেজে আপলোড করতে পারবেন না। অন্য কারো কন্টেন্ট বা ভিডিও থেকে ক্লিপ কেটে কেটে নিয়ে জোড়া দিয়ে ভিডিও তৈরি করলেন তা করা যাবে না। এটা ধরা পড়লে আপনার ভিডিও ডুপ্লেকেট কন্টেন্ট হিসাবে পরিগনিত হতে পারে। তাই আপনার নিজের তৈরিকৃত কন্টেন্ট ব্যবহার করবেন।

7. শেয়ার করা :

শেয়ার করা হচ্ছে আপনার ভিডিও বা কন্টেন্ট কোনো পেজে বা গ্রুপে শেয়ার করা যাবে না। কোনো প্রকার বুষ্ট করা যাবে না। ম্যাসেন্জার বা হোটস আপে শেয়ার করা যাবে না। কোনো প্রাকার শেয়ার বা বুষ্ট করা হলে ফেসবুক আপনার ভিডিও মনিটাইজ নাও করতে পারে। তাই কোনো প্রকার শেয়ার করা থেকে বিরত থাকতে হবে।

পড়ুন :

কিভাবে ফেসবুক মার্কেটিং করে আয় করবেন

কিভাবে ডাটা এন্ট্রি করে আয় করবেন

শেষ কথা :

পরিশেষে কথা হচ্ছে ফেসবুক থেকে আয় করা যেমনি সহজ আবার তেমনি কঠিন। ফেসবুক থেকে আয় করার অসংখ্য পথ রয়েছে। তার মধ্যে পারফেক্ট হচ্ছে ফেসবুকে ভিডিও (Facebook Video) আপলোড করে আয় করা। আপনি যদি ফেসবুকের পলিসি মেনে ভিডিও আপলোড করতে পারেন তাহলে অনায়াসে লাখ টাকা ইনকাম করতে পারবেন। মনে রাখবেন ফেসবুকে ভিডিও আপলোড করে ইনকাম করতে চাইলে আপনার একটি সুন্দর ফেসবুক পেজ থাকতে হবে। পেজকে সঠিক ভাবে অপটিমাইজ করতে হবে। তাহলে সহজে ইনকাম করতে পারবেন।

Related posts

3 Thoughts to “ফেসবুকে ভিডিও (Facebook Video) আপলোড করে লাখ টাকা আয় করুন”

  1. Really this video is very helpful for us. thanks carry on.

  2. gtJrFYVnfEHqhPX

  3. Point effectively considered!! effective essay writing courses online xyz homework

Leave a Comment