ফেসবুক বিজনেস পেজ (Facebook Business Page) খোলার নিয়ম

Facebook Business Page

অনলাইনে বিজনেস করতে চাইলে ফেসবুক বিজনেস পেজ (Facebook Business Page ) খোলা একান্ত প্রয়োজন। ফেসবুক বিজনেস পেজ অত্যন্ত শক্তিশালী মাধ্যম। যার মাধ্যমে ব্যবসা করে সহজে সফলতা আনায়ন করা সম্ভব। এই বিজনেস পেজে প্রোডাক্ট সম্পর্কিত বিজ্ঞাপন ও রিভিউ তৈরি করে আপলোড দিতে পারেন। পেজে লাইক ও ফোলয়ার বাড়াতে পারেন। আপনার পেজে যদি পর্যাপ্ত পরিমান ভিজিটর থাকে তাহলে সহজে সেল জেনারেট করে আয় করতে পারবেন। এছাড়া এখান থেকে বুস্ট করে সেল জেনারেট করে আয় করতে পারবেন। ফেসবুক পেজে শুধু প্রোডাক্ট রিভিউ দেওয়া যায় তাই নয় প্রোডাক্টের ভিডিও আপলোড করতে পারবেন। ইউটিউবে যেমন ভিডিও আপলোড করে ইনকাম করা যায় তেমনি ফেসবুক পেজে ভিডিও আপলোড করে মনিটাইজেশন করে ইনকাম করতে পারবেন। তবে কিছু নিয়ম কানুন রয়েছে। সে গুলো সঠিক ভাবে ফুলফিল করতে পারলে ভালো পরিমান একটা এমাউন্ট ইনকাম করতে পারবেন।

ফেসবুক বিজনেস পেজ কি :

ফেসবুক বিজনেস পেজ হচ্ছে ফেসবুকের একটি প্লাটফর্ম। এই বিজনেস পেজে প্রোডাক্ট রিভিউসহ বিজ্ঞাপন দিতে পারবেন এবং যে কোন ভিডিও আপলোড দিতে পারবেন। এখান থেকে আপনার ফলোয়ার বা ভিজিটররা বিজ্ঞাপন বা ভিডিও দেখে মোটিভেটেড হয়ে আপনার সার্ভিস বা প্রোডাক্ট ক্রয় করতে পারেন। মোটকথা ফেসবুক বিজনেস পেজের মাধ্যমে আপনার ব্যবসার যে কোন প্রোডাক্ট সেল করতে পারবেন। আপনি যে কোন সার্ভিস দিতে পারবেন। আপনি যে কোন ভিডিও আপলোড দিয়ে ফেসবুক পেজ মনিটাইজেশন করে ইনকাম করতে পারবেন। ফেসবুক প্রোফাইলে 5000 এর বেশি ফ্রেন্ডলিস্ট তৈরি করা যায় না। আর ফেসবুক পেজে অসংখ্য লাইক ও ফলোয়ার বৃদ্ধি করা যায়। আপনার পেজে যদি লক্ষ লক্ষ ফলোয়ার বাড়াতে পারেন তাহলে সহজে আপনার সার্ভিস বা ব্যবসার সমৃদ্ধি লাভ করতে পারবেন। ফেসবুক পেজকে ফেসবুক ফ্যান পেজও বলা হয়ে থাকে।

ফেসবুক বিজনেস পেজ (Facebook Business Page) খোলার নিয়ম :

ফেসবুক একটি সোসাল মিডিয়া প্লাটফর্ম। এখানে লক্ষ লক্ষ মানুষের সমাগম ঘটে থাকে। এখানে সহজে একটি পেজ খুলে ব্যবসার প্রোডাক্ট সেল করা যায়। ওয়েবসাইটে ট্রাফিক বৃদ্ধি করা যায় এবং অসংখ্য লাইক ও ফলোয়ার বৃদ্ধি করা যায়। ফেসবুক বিজনেস পেজ তৈরি করা খুব একটি কঠিন কাজ নয়। আপনি সহজে একটি ফেসবুক বিজনেস পেজ খুলতে পারবেন। আসুন জেনে নেই কিভাবে একটি ফেসুবক বিজনেস পেজ খোলা যায়। আমরা একটি প্রফেশনাল ফেসবুক বিজনেস পেজ 4টি ধাপের মাধ্যমে তৈরি করবো।

1. ফেসবুক পেজ ক্রেয়েট :

প্রথমে ফেসবুক পেজ ক্রেয়েট বা তৈরি করতে হবে। ফেসবুক পেজ তৈরি করতে হলে আপনার ফেসবুক প্রোফাইল ওপেন করতে হবে। আমি আমার প্রোফাইল ওপেন করছি। আপনি আপনার প্রোফাইল ওপেন করলেও নিচের মতো একটি ইন্টারফেস দেখতে পাবেন।

Facebook Page 2 :

Facebook Page (2)

এই ইন্টারফেসে বা প্রোফাইলে উপরে লাল বৃত্তে তীর চিহ্ন দিয়ে মেনুতে ক্লিক করলে ড্রপডাউন একটি লিস্ট দেখতে পাবেন তাতে Page এ ক্লিক করতে হবে। অথবা বাম পার্শে লাল আয়াতাকার বৃত্তে তীর চিহ্ন দিয়ে দেখানো Pages এ ক্লিক করুন। আমার মতে বৃত্তাকার মেনুতে ড্রপডাউন লিস্ট থেকে Page এ ক্লিক করুন। তাহলে নিচের মতো একটি ইন্টারফেস দেখতে পাবেন।

Facebook Page 3 :

Facebook Page 3

এই ইন্টারফেসে উপরে লাল তীর চিহ্ন দেওয়া দেখানো Page name এর ঘরে আপনার পেজ যে নামে তৈরি করতে চান তার নাম দিন। যদি সবুজ টিক চিহ্ন দেখায় তাহলে ঠিক আছে। আর যদি না দেখায় তাহলে অন্য কোন নাম দিন। তারপর Category ঘরে আপনার পেজ কি রিলেটেড তার নাম সিলেক্ট করে দিন। তারপর Description ঘরে দুই তিন লাইন আপনার বিজনেস রিলেটড কিছু লিখে দিন। ডিসক্রেপশন না লিখলেও কোন সমস্যা নেই পরে লিখলেও হবে। এবার একেবারে নিচে Create Page এ ক্লিক করুন। তারপর সেভ বাটনে ক্লিক করুন। বাছ হয়ে গেল আপনার ফেসবুক বিজনেস পেজ ক্রেয়েট বা তৈরি।

2. ফেসবুক পেজ কাস্টমাইজেশন :

ফেসবুক পেজ কাস্টমাইজেশন হচ্ছে পেজের কভার ফটো সেটাপ করা, লোগো সেটাপ করা ও অন্যান্য ফ্যাংশন গুলো যথাযথ সেটাপ করতে হবে। নিচের ইন্টারফেসকে সঠিক ভাবে কাস্টমাইজেশন করতে হবে।

Facebook Page Customize :

Facebook Page Customize

এই ইন্টারফেসকে সুন্দর ভাবে কাস্টমাইজ করতে হবে। প্রথমে উপরে একটি সুন্দর কভার ফটো সেট করতে হবে। যার সাইজ লম্বা 640 পিক্সেল এবং প্রস্থ 360 পিক্সেল হবে। তারপর গোলাকার বৃত্তে সুন্দর সাইজ একটি লোগো সেট করতে হবে। যেন সঠিক ভাবে দেখা যায়।

3. ফেসবুক পেজ এস ই ও করা :

ফেসবুক পেজ এস ই ও করা একটি গুরুত্বপূন সেটাপ। এস ই ও করলে সহজে আপনার পেজ গুগুলে দেখা যাবে। Add a button এ ক্লিক করে Learn more বা send masses বাটন সেট করে দিন। এবার লাল বৃত্ত ঘরে More বাটনে ক্লিক করুন। About সেকশন থেকে Additional contact info থেকে Website link বসিয়ে দিন। আপনার ফোন নম্বার দিন। আপনার একটি ইমেল দিন। ডিসক্রেপশন ঘরে আপনার পেজ সম্পর্কে অবশ্যই দু’চার লাইন কিছু লিখবেন। ডিসক্রেপশনের মধ্যে আপনার পেজের নাম একবার বা দুইবার লিখবেন। এছাড়া অন্যন্য ফ্যাংশন গুলো প্রয়োজন মতো সেট করে দিন।

পড়ুন :

কিভাবে ফেসবুক এডস ক্যাম্পেইন পরিচালনা করবেন।

কিভাবে ফেসবুক পিক্সেল সেট আপ করবেন

4. ফেসবুক পেজ অটোমশন করা :

ফেসবুক পেজ অটোমশন হচ্ছে আপনার ফেসবুক পেজের সাইট বার থেকে Edit Page info থেকে User name, Location, City, Zip code সেট করে দিন। এছাড়া সার্ভিস এরিয়া সেট করুন এবং কয়টা থেকে কয়টা পর্যন্ত খোলা থাকে ইত্যাদি সেট করুন। প্রাইভেসি পেজ সেট করে দিন। এছাড়াও সেটিংস থেকে প্রয়োজন অনুযায়ী Page Roles সেটাপ করে দিতে পারেন।

পরিশেষে কথা হচ্ছে ফেসবুক বিজনেস পেজ (Facebook Business Page) খুলতে হলে পেজের নাম, ক্যাটাগরি, লোগো, কভার ফটো, এড বাটন, ফোন নম্বার, ইমেল এবং ডিসক্রেপশন সঠিক ভাবে সেটাপ করতে হবে। ডিসক্রেপশনে পেজের নাম অবশ্যই থাকতে হবে। পেজকে সঠিক ভাবে এস ই ও করতে হবে। ইউনিক কন্টেন্ট পোস্ট করতে হবে। তাহলে আপনার পেজ গুগুলের ফাস্ট পেজে দেখাবে। গুগুলের ফাস্ট পেজে আসতে পারলে আপনার পেজের ভেলু বেড়ে যাব এবং ভিজিটরও বৃদ্ধি পাবে। ভিজিটর বৃদ্ধি মানে আপনার কাঙ্খিত সার্ভিস বা প্রোডাক্ট সেল হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকবে। ধন্যবাদ।

Related posts

Leave a Comment